• শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
চাঁদপুরে চেয়ারম্যানকে মারতে গিয়ে দেশীয় অস্ত্রসহ যুবক আটক হাজীগঞ্জ পৌরসভাসহ কয়েকটি সরকারি প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে আনার দায়িত্ব প্রার্থীর আর নির্বাচন সুষ্ঠ করার দায়িত্ব আমাদের-জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান শিক্ষার্থীকের শাসন করায় শিক্ষককে মেরে হাসপাতালে পাঠালো অভিভাবক ব্রিজের রেলিং ভেঙ্গে বাস নদীতে, নিহত ৩১ হাজীগঞ্জ স্বর্ণকলি কেজি এন্ড হাই স্কুলের শিক্ষা সফর ও বার্ষিক ক্রীড়ার পুরস্কার বিতরণ প্রধানমন্ত্রীর ১৫টি নির্দেশনা বাস্তবায়নে দেশের সব পৌরসভার মেয়র ও প্রশাসককে চিঠি প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম বাড়ছে ৩৪ পয়সা, সমন্বয় হবে তেলের দামও দ্বাদশ জাতীয় সংসদের ৫০টি সংরক্ষিত নারী আসনে বিজয়ীদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ সাংবাদিক সাগর-রুনি হত্যা মামলার প্রতিবেদন ১০৬ বারের মতো পেছালো

হাজীগঞ্জে শিশু শাহরিন হত্যায় জড়িত ‘মা’ গ্রেফতার

ত্রিনদী অনলাইন
ত্রিনদী অনলাইন
আপডেটঃ : মঙ্গলবার, ২২ নভেম্বর, ২০২২
Exif_JPEG_420

ত্রিনদী অনলাইন ডেস্ক :

হাজীগঞ্জে শাহরিন নামের ৪ মাস বয়সি এক শিশুকে নিমর্ম নির্যাতন করে হত্যার দায়ে শিশুর মা মানসুরাকে (৩০) আটক করেছে পুলিশ। সোমবার (২১ নভেম্বর) সকালে হাজীগঞ্জ থানার এসআই নাজিমউদ্দিন তাকে আটক করে। আটক মানসুরা পৌরসভাধীন মকিমাবাদ গ্রামের ৫নং ওয়ার্ডের জাহাঙ্গীর আলমের মেয়ে।

গত ৬ আগস্ট (শনিবার) ভোররাতে উপজেলার হাজীগঞ্জ সদর ইউনিয়নের বাড্ডা মিজি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে সকালে নিহত শিশু শাহরিনের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ। শিশুটি ওই বাড়ির প্রবাসি ফারুক হোসেন মিয়াজির একমাত্র মেয়ে।

জানা গেছে, শনিবার সকালে মায়ের হাতে শিশু খুন এমন খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি জানতে পেরে হাজীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. নাজিম উদ্দীনসহ সঙ্গীয় ফোর্স ওই বাড়িতে যান।

এসময় তিনি নিহত শিশুর মা ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সাথে কথা বলেন এবং শিশুর মরদেহ উদ্ধারপূর্বক সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে থানা হেফাজতে নিয়ে আসেন।

শিশুটির মামার বাড়ির লোকজন জানান, অন্যদিনের মতো শিশুটিকে নিয়ে ঘুমিয়ে ছিল তার মা মানসুরা বেগমের সাথে। রাতে কয়েকবার দুধও খায়। কিন্তু রাত তিনটার পর শিশুটির কোন সাড়া-শব্দ না পেয়ে, তার মা কান্নাকাটি শুরু করেন।

এসময় কান্নাকাটি শুনে পরিবারের অন্য সদস্যরা তার (শিশুটির মা) ঘরে আসেন। এরপর শিশুটি মারা গেছে বলে সবাই বুঝতে পারেন।

এদিকে শিশু শাহরিনের মৃত্যুর বিষয়টি নিয়ে তার প্রবাসী বাবা ও দাদার পরিবারের সদস্যরা রহস্যজনক বলে মনে করেন।

হাজীগঞ্জ থেকে শিশুটির মরদেহ চাঁদপুর মর্গে প্রেরণ করা হলে দীর্ঘ প্রায় ৪ মাস পর ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসে শিশুটিকে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে। তারই প্রেক্ষিতে পূর্বে শিশু শাহরিনের ফুফুর হালিমা আক্তারের জিডি মূলে মামলাটি এজাহারভূক্ত করা হয়। সোমবার সকালে নিহত শিশু শাহরিনের মা মানসুরাকে আটক করে হাজীগঞ্জ থানা পুলিশ।

এ দিকে অভিযুক্ত মানসুরা এটি তার দ্বিতীয় বিবাহ। আগের ঘরে আমার একটি সন্তান রয়েছে। আমার সন্তানকে আমি কেনো হত্যা করবো। রাতে আমি প্রাকৃতিক ডাকে সাড়া দিতে গেলে বাথরুমে বসেই শিশুটির প্রচণ্ড কান্নার আওয়াজ শুনতে পাই। পরে দ্রুত প্রাকৃতিক ডাক সেরে এসি দেখি শাহরিন নড়াছড়া করছেনা। তিনি বলেন, আমার ননদরাই কেউ তাকে হত্যা করে আমাকে ফাঁসাতে চাইছে। বিয়ের প্রথম থেকেই তারা আমাকে মেনে নিতে পারেনি।

হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ জোবাইর সৈয়দ বলেন, নিহত শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে হত্যার আলামত পাওয়া যাওয়ায় হত্যার শিকার শিশুটির মা মানসুরাকে আটক করা হয়েছে। সোমবারর তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুক

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১